আমার ইগো ধীরে ধীরে শক্তিশালী হচ্ছে, এভাবেই আমার এক বন্ধু নিজের সম্পর্কে আমাকে জানায়। ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে যত লাইক বাড়ছে, দিনকে দিন তার ইগো বড় হচ্ছে। কিভাবে ইগো কমানো যায়?
বেশ কঠিন একটি প্রশ্ন। ইগো বিষয়টার সঠিক ব্যবহারিক বাংলা বেশ কুয়াশাচ্ছন্ন। ইগো আসলে কি নেতিবাচক না ইতিবাচক তা নিয়েও যথেষ্ট বিতর্ক দেখা যায়। আসলে ইগো কে?
নিজেকে অন্যের সাথে কখনও তুলনা করা ঠিক না। তুলনা করার মন মানসিকতা আমাদের আনন্দ কেড়ে নেয়। আপনি যখন থেকে নিজেকে অন্যদের সাথে তুলনা করা শুরু করবেন, তখনই আপনি নিজেকে হারিয়ে ফেলবেন।
নিজেকে জীবনের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে জানাতে হবে। জীবনের হাজারো দিক, কেউ এক ক্ষেত্রে ব্যর্থ হলে অন্য ক্ষেত্রে সে সফল হতেই পারে। বিশ্বকাপ ফুটবলের কথা চিন্তা করুন, ফাইনালে যে দল হেরে যায় সে দলেরও কিন্তু একজন ক্যাপ্টেন থাকে। ক্যাপ্টেন কিন্তু সব সময়ই ক্যাপ্টেন।
আমরা খুব সাধারণ অর্থে টাকা পয়সা বা প্রভাব দেখে মানুষকে বিচার করি। যা আসলে সব সময়ই ভুল। অন্যের কথা মাথায় নিলেই সব সময় বিপদ।

-- Stay cool. Embrace weird.
Total 1,004 views. Thank You for caring my happiness.

Comments

comments