আমাদের নতুন নতুন হ্যাবিট তৈরি করতে বেশ সমস্যায় ভুগতে হয়। এই যেমন সকালে ঘুম থেকে ওঠা কিংবা প্রতিদিন জিমে যাওয়া-অভ্যাস আর হয়ে ওঠে না। এক্সারসাইজিং, বা মেডিটেশন যে কোনও অভ্যাস গড়ে তোলা বেশ কঠিনই মনে হয়। আমার চারপাশে এমন মানুষ দেখি যারা প্রত্যয়ী কিন্তু অভ্যাস আর গড়ে তুলতে পারেন না। ২০১৬ সালে আমি প্রথম জানতে পারি, কোন কাজ যদি টানা ২১দিন গড়ে তোলা যায় তা হলে তা একটি দারুণ অভ্যাসে পরিণত হয়।

আমরা জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে নিয়মিত যা করি তাই অভ্যাস হয়ে ওঠে। আবার কোন কোন কাজ সপ্তাহে করি-তাও অভ্যাসে পরিণত হয়। নিয়মিত মানে হচ্ছে প্রতিদিন যে কাজ করবো আমরা তাই কিন্তু অভ্যাসে পরিণত হওয়ার সুযোগ থাকে। নিয়ম শব্দটা অভ্যাসের সঙ্গে ভীষণভাবে জড়িত। আপনি যদি সকাল উঠতে চান, সেই চাওয়া যদি শুধুই চাওয়া থাকে তাহলে আপনি শেষ। চাওয়ার সাথে নিয়মের সম্পর্ক যোগ করতে হবে।
কোন কিছু প্রতিদিন করা মানে কিন্তু আমাদের সেই কাজটি নিয়ে বেশি ভাবনার সুযোগ থাকে না। এই যেমন দাঁত ব্রাশ করা, আমরা কি ভীষণ চিন্তায় পড়ি এই কাজ নিয়ে?

প্রশ্নোত্তরের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কোরাতে আরও যা পড়তে পারেন:

যেকোনো স্টার্টআপ ব্যর্থ হওয়ার প্রাথমিক লক্ষণ কী?

আমি যদি আগামী ১০ বছরের মধ্যে কোটিপতি হতে চাই, তবে আপনি কোন বইটির পরামর্শ দেবেন ?

জীবনের কোন তিক্ত সত্যগুলি সবার জেনে রাখা উচিত?

আলস্য ছেড়ে কর্মক্ষম হয়ে ওঠার সেরা উপায় কী?

-- Stay cool. Embrace weird.
Total 587 views. Thank You for caring my happiness.

Comments

comments