(এই লেখাটি কোন তারকা, ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা পেশাকে আক্রমণ করে নয়।কোনভাবেই কাউকে অসম্মান বা হেয় করার জন্য নয়, উইকিপিডিয়ার একটি কার্যকর নীতি সম্পর্কে সাধারণ ভাবনা নিয়ে লেখা।)

যেহেতু সাংবাদিকতার সঙ্গে টুকটাক যুক্ত, অনেকের কাছ থেকেই একটা প্রশ্ন শুনি। অনেক তারকা অনেক সময় আক্ষেপ করেন যে, তার উইকিপিডিয়াতে কোন আর্টিকেল নেই। তিনি তার অর্জন, তার গুরুত্ব উইকিপিডিয়ার মাধ্যমে সবার কাছে প্রকাশ করতে চান। উইকিপিডিয়াতে নিবন্ধ বা আর্টিকেল থাকা খুব গুরুত্বপূর্ণ ভাবা হয়। উইকিপিডিয়াতে প্রোফাইল বা ফেসবুকের মত পেইজ বা ফ্যান-পেইজ বলে কিছু নেই।

ইংরেজি উইকিপিডিয়াতে অভিনয়শিল্পী আলিশা প্রধানের নিবন্ধ নিয়ে বেশ প্রশ্ন আছে বলে উইকিপিডিয়ার মানদণ্ডে আর্টিকেলটি আদর্শ নয়। আলিশা প্রধানের আর্টিকেল পড়লেই তারকাদের ‘পাপারাজ্জি টাইপের জনপ্রিয়’ আর্টিকেল মনে হবে। নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন আছে। আর্টিকেলটির লিংক।

অধিকাংশ ক্ষেত্রেই, তারকারা বিশেষ করে বাংলাদেশের তারকারা বুঝতে চান না উইকিপিডিয়াতে আসলে আর্টিকেল হিসেবে তার নিবন্ধ থাকা গুরুত্বপূর্ণ নয়।কোন তারকা বা কোন ব্যক্তির ওপর নিবদ্ধ উইকিপিডিয়াতে থাকবে তার উত্তর একটা সহজ প্রশ্নের মাধ্যমে জানা যায়।

প্রশ্নটি হচ্ছে,
‘উইকিপিডিয়া কিংবা কোন বিশ্বকোষে তারকা হিসেবে কেন সাধারণ মানুষ বা গবেষকেরা আপনাকে অনুসন্ধান করবেন?’

এই ‘কেন’ প্রশ্নটার উত্তর যত শক্তিশালী হয় ততই তার আসলে উইকিপিডিয়াতে নিবন্ধ তৈরি সুযোগ থাকে। আপনি হয়তো তারকা। অনেক নাটকে অভিনয় করেছেন, ফেসবুকে অনেক ফলোয়ার। কিন্তু বিশ্বকোষেও হয়তো আপনার নাম নেই। কেন নেই?-এই প্রশ্নের উত্তর উপরের প্রশ্নটির মাধ্যমে ব্যাখ্যা করলেই বুঝবেন।

‘উইকিপিডিয়া কিংবা কোন বিশ্বকোষে তারকা হিসেবে কেন সাধারণ মানুষ বা গবেষকেরা আপনাকে অনুসন্ধান করবেন?’

অনেক আলোচিত ব্যবসায়ী, স্টার্ট-আপের সিইও, অভিনেতা, উপস্থাপক, টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব আমাকে মাঝেমধ্যেই অনুরোধ করেন। উইকিপিডিয়াতে তার প্রোফাইলটা তৈরি করে দেয়া যায় কিনা? উনারা বুঝতেই চান না, উইকিপিডিয়া কোন প্রোফাইল তৈরি জায়গা নয়। যখন কোন ব্যক্তির গুরুত্ব থাকে, সেই ব্যক্তি সম্পর্কে আলোচনা তৈরি হয়, জাতীয় বা আন্তর্জাতিক কোন পুরস্কার অর্জন হয়, সেই ব্যক্তির ব্যক্তিত্ব ও তথ্য অন্যদের কাছে প্রয়োজন আছে তখনই আসলে উইকিপিডিয়াতে তার নিবন্ধ তৈরি সুযোগ থাকে।

কেন আসলে তারকাদের উইকিপিডিয়ার আর্টিকেল (বা প্রোফাইলিং) প্রয়োজন হয়?

-দেশের বাইরে কোন কাজ করতে গেলে বাইরের এজেন্সি বা নেটফ্লিক্স উইকিপিডিয়াতে আর্টিকেল খোঁজেন। তিনি কতটা জনপ্রিয় তা জানার জন্য নিরপেক্ষভাবে তথ্য অনুসন্ধানের জন্য।
-তারকাদের নিজের ফেসবুক ফ্যান-ফলোয়ারদের কাছে নিজের গুরুত্ব তুলে ধরার জন্য। “অবশেষে উইকিপিডিয়ায় প্রকাশিত হলও তার প্রোফাইল” এমন সংবাদে অনেক নাম না জানা অনলাইনে দেখা যায়।
-পেইজ ভ্যারিফাই করার জন্য ফেসবুক উইকিপিডিয়ার লিংক গুরুত্ব দেয় বলে শুনেছি।
-নিজের অর্জনের কথা পুরস্কারের কথা সবার কাছে প্রচার করার জন্য।
এক্ষেত্রে লক্ষণীয়, আসলে উইকিপিডিয়াতে নিবন্ধ তৈরি করে তারা সর্বোচ্চ ভাবে নিরপেক্ষ থাকার চেষ্টা করে।অনেক ক্ষেত্রেই ব্যক্তিগত পছন্দ কিংবা সাম্প্রতিক ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অনেক তারকারই নিবন্ধ তৈরি করা হয়। এক্ষেত্রে উইকিপিডিয়ান যারা তারা বেশ সতর্ক থাকেন।


এখন অনেকেই প্রশ্ন করেন, অমুকের আছে-আমার নেই কেন? আমরা তো দুজনেই সমান কিংবা আমিতো তার চাইতে জনপ্রিয়? এখানে ‘জনপ্রিয়’ শব্দটাই মূল সমস্যা তৈরি করে। পৃথিবীর যেকোনো বিশ্বকোষে নাম সংযুক্ত করার জন্য জনপ্রিয় শব্দটা কোন মানদণ্ড নয়। একজন ব্যক্তি তার অর্জন, তার প্রভাব-তিনি যে বিষয়ে কাজ করছেন সেই বিষয়ে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি উইকিপিডিয়াতে তারকাদের উপর নিবন্ধ তৈরিতে শক্তিশালী ব্যাকগ্রাউন্ড হিসেবে বেশ কার্যকর।

উদাহরণ এক
কোন তারকার হয়তো বা কয়েক লাখ নাটক আছে। কয়েক লাখ ফলোয়ার আছে। অনেক পত্রিকাতে তার সম্পর্কে লেখা হয়। তিনি নিবন্ধ তৈরি করতে চান।এক্ষেত্রে আসলে সেই ব্যক্তি তা কতখানি সামাজিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ তার ওপর নির্ভর করছে তার নিবন্ধ তৈরি হবে কিনা। একজন তারকাকে যত লোক চেনেন অনেক সময় অনেক ওয়ার্ড কমিশনারকে অনেক লোক চেনেন, পীর মুরশিদদের বা ওয়ার্ড কমিশনারের উইকিপিডিয়াতে আর্টিকেল থাকাটা কতখানি গুরুত্বপূর্ণ তা সহজভাবে বুঝলেই বোঝা যায় আসলে আপনার প্রোফাইল গুরুত্বপূর্ণ কিনা।

জাগো ফাউন্ডেশনের করভি রাখসান্দের উইকিপিডিয়ার আর্টিকেলটি মুছে ফেলা হয়েছে। গ্রহণযোগ্যতা মানদণ্ডে করভির পেইজটি সরিয়ে ফেলা হয়। (নিবন্ধ সরিয়ে ফেলা মানে কিন্তু তাকে অসম্মান বা কাজ বন্ধ করার কথা বলা হচ্ছে না)
এই নিবন্ধ উইকিপিডিয়াতে থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। একটু পড়লেই বুঝবেন কেন। উইকিপিডিয়াতে সেলফ প্রোমোশন বিষয়টি নিরুৎসাহিত করা হয়।

উদাহরণ দুই
অনেক সাংবাদিক বা তারকা বলেন আমার এতগুলো বই আছে, এই আছে-সেই আছে। আমার কোনই প্রোফাইল নাই। এক্ষেত্রেও গ্রহণযোগ্যতা শব্দটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনি কি আসলে গুরুত্বপূর্ণ সেটা নিয়ে কিন্তু প্রশ্ন থাকে? আপনার গণ্ডির বাইরে আপনার কাজ সম্পর্কে কতজন জানেন? বিশ্ববিদ্যালয় বা গবেষণা পর্যায়ে আপনার কাজের গুরুত্ব কতটুকু?

উদাহরণ তিন
আমার অনেক পুরস্কার আছে। তারকার বিভিন্ন কাজের জন্য পুরস্কার পেয়ে থাকেন। তাদের অর্জন থাকে, সেই অর্জনের গুরুত্ব উপর নির্ভর করে আসলে সিদ্ধান্ত নিতে হয় সেই তারক আর প্রোফাইল থাকবে কিনা। যেকোনো আন্তর্জাতিক পুরষ্কার বা অর্জন উইকিপিডিয়াতে নিবন্ধ তৈরির জন্য মাপকাঠি। বাংলাদেশের অনেক পুরষ্কার নিয়ে বিতর্ক আছে, কিংবা মহাত্মা গান্ধী গোল্ড মেডেল টাইপের বা সেরা সন্তান ঘরানার অনেক পুরষ্কার আছে-সে সবের উপর ভিত্তি করে নিবন্ধ তৈরি করা যায় না অনেক ক্ষেত্রেই।

একজন তারকার কাজকে নিরপেক্ষভাবে মূল্যায়ন করে উইকিপিডিয়াতে নিবন্ধ তৈরি করা হয়। জনপ্রিয় বিখ্যাত প্রভাবশালী আলোকিত এই সময়ে গুরুত্বপূর্ণ এই শব্দগুলো কোন মানদণ্ড নয়, আর বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে আমরা যদি খেয়াল করি-দশ লাখ লাইক, অনেক পুরস্কার অর্জন করা অনেক তরুণ নিজের নিবন্ধ উইকিপিডিয়া দেখতে যান অথচ বৈশ্বিক বিচারে বিশ্বকোষের যেই গুণাবলীর কথা আমরা বলি তার প্রেক্ষিতে উইকিপিডিয়াতে তিনি গ্রহণযোগ্য নন।

কি করলে প্রোফাইল বা নিবন্ধ তৈরি হবে?- এমন প্রশ্নের উত্তরে বলতে চাই, তারকারা যারা আসল কাজ করেন তারা নিজের খ্যাতি সম্পর্কে খুব একটা সচেতন থাকেন না। নিজের প্রভাব-প্রতিপত্তি ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে এবং তাদের একটা সামাজিক গুরুত্ব তৈরি হয়। সেই গুরুত্বের উপর নির্ভর করেই তাদের অজ্ঞাতেই নিবন্ধ তৈরি করা হয়। মৃত্যুবরণের পর অনেক তারকার আর্টিকেল কিংবা লেখা উইকিপিডিয়াতে উইকিপিডিয়ান সংযুক্ত করেন।

এটা মনে রাখতে হবে, উইকিপিডিয়া কোন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নয়- এখানে সব মানুষের প্রোফাইল থাকা গুরুত্বপূর্ণ নয়। তারকারা এই বিষয়টাই ভুল করেন।

একই বিষয় অনেক স্টার্ট-আপ বা প্রতিষ্ঠানের জন্য প্রযোজ্য। উইকিপিডিয়া কোন বিজনেস ডিরেক্টরি নয়।যাদের আসলে উইকিপিডিয়াতে নিবন্ধ তৈরি হয় না। (কোনভাবে তৈরি হলেও পরবর্তীতে গুরুত্ব বুঝে মুছে ফেলা হয়।)
-(আলোচিত, আন্তর্জাতিক পুরস্কারজয়ী, প্রভাবশালী নন এমন) কোন প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী।
-(সেরা উদ্যোক্তা, সেরা তরুণ পুরষ্কার পান) কোন তরুণ।
-টেলিভিশন অভিনেতা, উপস্থাপক, ইউটিউবার, সোশাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার। 


উৎসাহের সঙ্গে বলতে চাই, তারকারা কাজ করে যান, স্বীকৃতি এক সময় আসবেই। তারকাদের আইএমডিবি প্রোফাইলকে নেটফ্লিক্স বা অন্যান্য এজেন্সি বেশ গুরুত্ব দেয়। তা তৈরিতে মনোযোগ দেয়া যায়। নিজের ওয়েবসাইটও তৈরির মাধ্যমে কাজের প্রচার করা যায়।



এই লেখায় অনেক পাবলিক তথ্য ও ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। যেহেতু Text is available under the Creative Commons Attribution-ShareAlike License হিসেবে ছবি ও তথ্য পাবলিক করা হয়, তাই পুনরায় প্রকাশ করেছি।

কোন প্রশ্ন থাকলে: [email protected]

 

-- Stay cool. Embrace weird.
Total 691 views. Thank You for caring my happiness.

Comments

comments